অংশীদারিত্বমূলক পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প-৩ (পিআরডিপি-৩) এর দাপ্তরিক সাইটে স্বাগতম

বাংলাদেশ একটি গ্রাম প্রধান দেশ। এ দেশের অধিকাংশ লোক গ্রামে বাস করে। শহরের বেশির ভাগ লোকেরও আদিবাস গ্রাম বা পল্লীতে। তাই জনকল্যাণে গ্রামের উন্নয়ন আবশ্যক। গ্রামের উন্নয়ন মানেই দেশের উন্নয়ন। পল্লী উন্নয়নের লক্ষ্যে বিগত শতকে বেশ কিছু মডেল উদ্ভাবন করা হয়। এর মধ্যে ১৯০৪ সালে উদ্ভাবিত গ্রামীণ সমবায় ব্যাংক ( Village Cooperative Bank) , ১৯৫৩ সালের  V-AID  কর্মসূচী, ১৯৫৯ সালের কুমিল্লা মডেল এবং দারিদ্র বিমোচনের লক্ষ্যে গৃহীত ১৯৭৬ সালের গ্রামীণ পদ্ধতির ক্ষুদ্র ঋণ অন্যতম। এ সকল উন্নয়ন মডেল বিভিন্ন বিভাগ/সংস্থা কর্তৃক বাসত্মবায়ন করা হয়েছে এবং হচ্ছে। ঋণসহ বস্ত্তগত সুবিধা প্রদান এ সকল মডেলের অন্যতম বৈশিষ্ট্য। উল্লেখিত কোন মডেলেই সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত সুবিধা জনগণের দোরগোড়ায় পৌছানোর ক্ষেত্রে ইউনিয়ন পরিষদকে কার্যকরভাবে ব্যবহার করা হয়নি। অর্থাৎ পল্লী উন্নয়নে নিয়োজিত পক্ষগুলো সম্মিলিতভাবে কাজ করার জন্য একটি সমন্বিত ব্যবস্থা অনুশীলন করা হয়নি, যা টেকসই পল্লী উন্নয়নের জন্য অপরিহার্য।

এ প্রেক্ষাপটে ১৯৮৬-৯০ মেয়াদে বার্ড, আরডিএ, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও কিয়োটো বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগ Community উন্নয়নে একটি টেকসই মডেল উদ্ভাবনের জন্য গবেষণা শুরু করা হয়। দেশের ৫ টি জেলার ৫ টি ইউনিয়নের ৬ টি গ্রামে এই গবেষণা পরিচালনা করা হয়। অত:পর বিএইউ, বার্ড, বিআরডিবি ও কিয়োটো বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে এর পরীক্ষামুলক প্রায়োগিক গবেষণা করা হয়। এর ৫ (পাঁচ) বৎসর পর ২০০০-২০০৪ মেয়াদে জাইকা ও বিআরডিবি’ উদ্যোগে PRDP-1 এর আওতায় টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতী উপজেলার ৪ টি ইউনিয়নে সফল পরীক্ষা শেষে ‘‘ Link Model ’’ উদ্ভাবন করা হয়। পরবর্তীতে প্রকল্পের ১ম ও ২য় পর্যায়ের কার্যক্রম অনুসরণে বাংলাদেশে ৬৪ টি জেলার ২০০ টি উপজেলার ৬০০ টি ইউনিয়নে পিআরডিপি-৩ নামে সম্প্রসারিত আকারে বাস্তবায়িত হচ্ছে।

ভিডিও ডকুমেন্ট (নাটক: লিংক মডেল)

অফিস ম্যাপ